কবিতা মহাজগতের পথে

———– জয়ত্রী রপ্তান (জয়া)———-

বেলা শেষে আজ ধরণী নিথর
আর নয় কাব্য কিংবা জাগতিক প্রেম,
শুরু হোক পথ চলা কঠিন মহাজগতের পথে।
যথা থাকবে না জড় জগতের প্রেম তৃষ্ণা
তথা ঝঙ্কারে লালিত্য হয় না বিরহ গাঁথা,
অথবা স্বার্থের রাজ্যে না পাওয়ার বেদনা ;
যেথায় রয় শুধু সীমাহীন প্রাপ্তিসম স্নিগ্ধতা।
এ দৃঢ় অঙ্গীকারের পথে একাই করতে হবে যাত্রা
অবশ্য এ পথে বেশি থাকবে বাধা বিপত্তির মাত্রা,
উত্তোলিত, উদ্ভাসিত প্রজ্ঞায় ভরবে হৃদয় ;
ক্ষুধার যন্ত্রণাময় জগৎ ছেড়ে যাত্রা মহাজগতের পথে।
ক্ষীণ গোধূলি ভরা দৃষ্টিতে চাই না কিছু আর দেখতে,
কারো বিরুদ্ধে রাগ কিংবা অভিযোগ তো নয়;
এ আমার বড় অভিমানের একলা পথ চলা।
স্বার্থের রুদ্ধশ্বাস থেকে পরিপূর্ণ মুক্তির পথ হয়তো
এটাই,ক্রমশ জন্ম নিচ্ছে সচেতনতার বিবেক;
জাগতিক পাওয়ার উচ্ছ্বাসে নাই বা হলাম উচ্ছ্বসিত,
সুতীক্ষ্ণ প্রতিবাদে নয় নিরবতার অন্ধকারে ডুবে যেতে চাই।
প্রয়োজন ছিল কারো ভালোবাসায় স্নেহধন্য হওয়ার,
হে আমার অনাদি কালের ভাবনা ;
তবুও আজ তোমায় দিলাম ছুটি,
তোমার সরব উপস্থিতিতেও আমার বেদনার রাজ্যে
ধরণী নিথর।

You might also like More from author