কালীগঞ্জে জমি জায়গা বিরোধ নিয়ে মারপিট ও ছিনতাই

জিএম মামুন নিজস্ব প্রতিনিধি

জি এম মামুন নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ২ জন আহত হয়েছে। এবং এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৩০ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ উঠেছে । এ বিষয়ে আহত বরুণ কুমার ঘোষ বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায় বরুণ কুমার ঘোষের সাথে কালীগঞ্জ উপজেলার ভাড়া সিমলা ইউনিয়নের পূর্ব নারায়ণ পুর গ্রামের। মৃত কালিপদ ঘোষ এর ছেলে কৃত্তিবাস ঘোষ ৪৮, রনজিত হালদার এর ছেলে পুলক হালদার ৪৬, কনক চন্দ্র ঘোষের ছেলে স্বপন ঘোষ ৪৮, মৃত হিরেন্দ্র ঘোষের ছেলে অরুণ ঘোষ ৪৭, মৃত সতেন্দ্র ঘোষের ছেলে সুজিত ঘোষ ৪৬ দের, সাথে একই এলাকার অসীম কুমার ঘোষের ছেলে বরুণ কুমার ঘোষের ৫ শতক জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এনে উপজেলা পরিষদ থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে কৃত্তিবাস ঘোষেরা অভিযোগ দায়ের করে।

জমির প্রকৃত মালিক বরুণ কুমার ঘোষ হওয়ায় জমির দলিল সঠিক থাকায় তার পক্ষে রায় প্রদান করে। এরপরও তারা যেন না থাকে বরুণ কুমার ঘোষ কে বিভিন্নভাবে হয়রানি করার জন্য সাতক্ষীরা আদালতে ১৪৫ মামলা দায়ের করে। এই মামলায় তদন্ত ভার পড়ে কালিগঞ্জ উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো মোঃ আলী আকবরের উপর। মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ১০ ঘটিকার সময় কানুনগো ঘটনাস্থলে তদন্তে যান। তদন্ত শেষে ওই জমির উপরে দুই বছর যাবত রাখা মজুদকৃত ইট, কার এটা জানতে চান।

এ সময় বরুণ ঘোষের নিজের জমিতে ২২ হাজার ইট কৃত্তিবাস তার বলে দাবি করে। পরবর্তীতে ইট নিয়ে দুই পক্ষের কথা কাটাকাটি আরম্ভ হয়। এক পর্যায়ে কৃত্তিবাস ঘোষ পুলক হালদার স্বপন ঘোষ অরুণ ঘোষ সুজিত ঘোষসহ তিন-চারজন বরুণ কুমার ঘোষদের উপরে হামলা চালায়। এ সময় তাদের হাতে থাকা লোহার রড ও বাঁশের লাঠি দিয়ে বরুন ঘোষের মামা দিলীপ কুমার ঘোষ ও তার বড় ভাইয়ের স্ত্রী মায়ারানি ঘোষকে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করে ও শীলতা হানি ঘটায়। কৃত্তিবাস ঘোষের হাতে থাকা ধারালো দা দিয়ে মাথায় কোপ মারতে গেলে সে হাত দিয়ে ঠেকায় হাতে দায়ের কোপে গুরুতর জখম হয়। মায়ারানি ঘোষের গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন জোরপূর্বক কেড়ে নেয়। তাছাড়া বরুণ ঘোষ কে মারধর করে তার পকেটে থাকা ৩০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। আহত অবস্থায় বর্তমানে দিলীপ কুমার ঘোষ মায়ারানি ঘোষ ও বরুণ ঘোষ কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।

এই বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে কাছে তিনি বলেন। আমি এখনো পর্যন্ত অভিযোগ হাতে পায়নি। থানায় অভিযোগ দিলে অবশ্যই তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

You might also like More from author