গিলগিটে ভোট করাচ্ছে পাকিস্তান,আপত্তি ভারতের!

মোঃ নূরে আলম সিদ্দিকী, বিশেষ প্রতিনিধি

গিলগিটে ভোট ঘোষণা দিল পাকিস্তান। যা নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়েছে ভারত। পাকিস্তানও ফের কাশ্মীর নিয়ে সরব হলো আন্তর্জাতিক মঞ্চে। পাকিস্তানের সঙ্গে নতুন বিতর্কে জড়ালো ভারত। গিলগিট বালতিস্তানে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চূড়ান্ত বাকযুদ্ধ শুরু হয়েছে দুই দেশের মধ্যে। আগামী ১৫ নভেম্বর পাকিস্তান গিলগিটে নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে। ভারতের বক্তব্য, সেনা দিয়ে ঐ অঞ্চল পাকিস্তান দখল করে রেখেছে। ফলে সেখানে নির্বাচন বেআইনি। অন্য দিকে, আন্তর্জাতিক মঞ্চে ফের কাশ্মীর প্রসঙ্গ উত্থাপন করার চেষ্টা করছে পাকিস্তান। তা নিয়েও পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারত।

কাশ্মীর এবং লাদাখ সীমান্তে অবস্থিত গিলগিট বালতিস্তান নিয়ে ভারত, পাকিস্তান এবং চীনের মধ্যে বিতর্ক বহুদিনের। ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের সময় থেকেই এই অঞ্চল নিয়ে বিতর্ক চলছে। ভারতের দাবি, পাকিস্তান সৈন্য ব্যবহার করে এই অঞ্চল দখল করে বসে আছে। পাকিস্তানের দাবি, গিলগিট বালতিস্তান পাকিস্তানেরই অংশ। আবার চীনও এই অঞ্চলের কিছুটা অংশ দাবি করে।

পাকিস্তান এই অঞ্চলে নির্বাচন ঘোষণা করার পরে ভারত অত্যন্ত কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, কাশ্মীর এবং লাদাখের সম্পূর্ণ অংশ ভারতীয় ভূখণ্ড। যারা সেই অঞ্চলের কোনো কোনো এলাকা দখল করে রেখেছে, তাদের সেখানে নির্বাচন করার কোনও অধিকার নেই। এ কাজ সম্পূর্ণ বেআইনি।

২০১৮ সালেই পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট গিলগিট বালতিস্তানে ভোটের কথা ঘোষণা করেছিল। সে সময়েও তার তীব্র বিরোধিতা করেছিল ভারত। এ বছর আগেই সেখানে ভোট হওয়ার কথা ছিল। করোনার জন্য দিন পিছিয়ে ১৫ নভেম্বর করা হয়েছে। মোট ২৪টি আসনে সেখানে রাজ্য স্তরের নির্বাচন হওয়ার কথা।

একদিকে গিলগিট বালতিস্তান নিয়ে যখন ভারত সুর চড়িয়েছে, তখন সিআইসিএ-র বৈঠকে নতুন করে কাশ্মীর নিয়ে সরব হয়েছে পাকিস্তান। ফের সেখানে কাশ্মীর প্রসঙ্গ উত্থাপন করে আন্তর্জাতিক কূটনীতির দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছে। এর আগে চীনের সাহায্য নিয়ে জাতিসংঘেও কাশ্মীর প্রসঙ্গ একাধিকবার তোলার চেষ্টা করেছিল পাকিস্তান। সম্প্রতি তুরস্কের রাষ্ট্রপ্রধান এর্দোয়ানও কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চকে সরব হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

ভারত অবশ্য এ বারও পাকিস্তানকে কড়া জবাব দিয়েছে। ভারত জানিয়েছে, কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তা নিয়ে পাকিস্তানের কথা বলার কোনও অধিকার নেই। ফলে ফের যে ভাবে আন্তর্জাতিক বৈঠকে পাকিস্তান এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করেছে, তা অনভিপ্রেত। ঠিক একই ভাবে গিলগিট প্রসঙ্গে ভারতকে জবাব দিয়েছে পাকিস্তান।

You might also like More from author