চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদার বিষ্ণুপুর গ্রামে বাংলার ঘোড়ার গাড়ি বিলুপ্তর পথে।

রকিবুল হাসান তোতা জেলা প্রতিনিধি চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামে এক সময় অনেকেই ঘোড়ার গাড়ি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। কিন্তু এখন আর ঘোড়ার গাড়ি চোখে একেবারে পড়ে না। আধুনিকতার যান্ত্রিক ছোঁয়ায় হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঘোড়ার গাড়ি।

সেই সাথে হারিয়ে যাচ্ছে গারুয়াল পেশা ও গ্রাম বাংলার ঘোড়া দৌড়। যা একসময় চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন উপজেলায় ঐতিহ্যবাহী ঘোড়ার গাড়ি বাহনের সরগরম অস্তিত্ব ছিল। ছিল সর্বত্র এই ঘোড়ার গাড়ির কদর। বিয়ে এবং অন্য কোন উৎসবে ঘোড়ার গাড়ি ছাড়া বিয়েই অসম্পর্ন হয়ে যেত। কিন্তু আধুনিকতার এই যুগে হারিয়ে যাচ্ছে ঘোড়ার গাড়ি।

হাতে গোনা দু-একটা গাড়ি দেখা যায় দু-একটা গ্রামে তাও জরাজীর্ন অবস্থা। তাছাড়া যেন চোঁখেই পড়ে না এই গাড়ি গুলো।
আজ শহরের ছেলে মেয়েরা তো দুরে থাক, গ্রামের ছেলে মেয়েরাও ঘোড়ার গাড়ি যানবাহনের সাথে পরিচিত না খুব একটা। আগে অনেকেরি এই গাড়ি গুলো ছিল উপার্জনের একমাত্র অবলম্বন।

বিষ্ণুপুর গ্রামের বেশকিছু গারুয়ালদের
সাথে কথা হয় ঘোড়া গাড়ি নিয়ে। তাহারা বলেন, আগে আমার বাপ-দাদারা এই গাড়ি চালিয়ে আমাদের সংসার চালাতো। কিন্তু এখন ঘোড়া গাড়ি চলে না তাই অটো ভ্যান চালিয়ে জীবন-জিবীকা নির্বাহ করি। কিন্তু এখন প্রায় এসব গাড়ি বিলুপ্তির পথে। দু-একটা গ্রামে ১-২টা ঘোড়ার গাড়ি পাওয়া যায় তাছাড়া তো চোঁখেই পড়ে না।

যান্ত্রিক সভ্যতার যুগে এখন ঘোড়ার গাড়ি বিলুপ্তির পথে। বাংলা এবং বাঙালির ঐতিহ্যগুলোকে আমাদের ধরে রাখা উচিত।

এই বিভাগের আরও খবর লেখক থেকে আরও