ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে হবিগঞ্জ বানিয়াচংয়ের সর্বস্তরের উলামায়ে কেরামগণ ও তৌহিদী জনতার বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

এস এম খলিলুর রহমান ব্যুরো চী়ফ হবিগঞ্জ জেলা :

ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে এবং ফ্রান্সের পণ্য জাতীয় ভাবে বয়কটের দাবিতে হবিগঞ্জ বানিয়াচংয়ের সর্বস্তরের উলামায়ে কেরামগণ ও তৌহিদী জনতার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩১ অক্টোবর শনিবার সকাল ১১ঘটিকায় আল্লামা আব্দুল বাছিত আজাদ সাহেবের সভাপতিত্বে ও মাওলানা মশিউর রহমান এবং মাওলানা মুনতাসির আলম সোহানের যৌথ সঞ্চালনায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সকাল থেকেই বিভিন্ন জায়গা থেকে খন্ড খন্ড মিছিল সহকারে বড় বাজার জামেয়া দারুল কোরআন মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে সমবেত হন ধর্মপ্রাণ আলেম-উলামা,মুসল্লি ও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার হাজার-হাজার মানুষ।

মিছিলটি বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এসে এক পথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসাতুল হারামাইন এর প্রধান পরিচালক আল্লামা মখলিছুর রহমান, বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইকবাল হোসেন খান, মুফতি কাজী আতাউর রহমান, মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদ, ক্বারী কমর উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল জলিল ইউসূফী, মাওলানা গোলাম কাদির, মাওলানা বশির আহমদ, মাওলানা ইকবাল হোসাইন, ২নং ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ওয়ারিশ উদ্দিন খান, ৩নং ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান, বড় বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ জয়নাল আবেদীন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাহজাহান মিয়া, মাওলানা শায়খ সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা আবুল আহমদ প্রমুখ। বক্তাগণ বলেন, মহানবী (সা.)কে ব্যঙ্গচিত্র করে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রো ২শ’ কোটি মুসলমানের অন্তরে কুঠারাঘাত করেছে। বাংলাদেশে ফ্রান্সের যতসব পণ্য আছে সবগুলো পণ্য বর্জন করতে হবে। অতিদ্রুত এ দেশ থেকে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করতে সরকারের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়। যতদিন না ফ্রান্স সরকার এর জন্য বিশ্বের মুসলমানের কাছে ক্ষমা না চাইবে, ততক্ষণ পর্যন্ত মুসলমানরা এ ঈমানী আন্দোলন চালিয়ে যাবে। পরে মোনাজাতের মাধ্যমে বিক্ষোভ সমাবেশ সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

You might also like More from author